কিভাবে আপনার ফোন এর ব্যাটারির চার্জ এর স্থায়িত্ব প্রসারিত করবেন

ব্যাটারি,চার্জ,কিভাবে চার্জ বারাবেন,কিভাবে আপনার ফোন এর ব্যাটারির চার্জ এর স্থায়িত্ব প্রসারিত করবেন

মোবাইল ফোনের ব্যবহারকারী হিসাবে, আমরা চাই এক চার্জে দিন শেষ জন্য যথেষ্ট ক্ষমতা সম্পন্ন একটি ব্যাটারি। হতাশাজনক কথা হল,নতুন নতুন মোবাইলে চার্জ ভালো থাকলেও দিন দিন মোবাইল পুরানো হলে মবাইলের ব্যাটারির ক্ষমতা কমে যায়।

প্রকৃতপক্ষে, আমাদের মোবাইলগুলির যে কোনও ব্যাটারির ব্যাটারি চার্জের পরিমাণ দুইটি মূল কারণের উপর নির্ভর করে: আমরা এখন কিভাবে মোবাইল ব্যবহার করি এবং আগে কিভাবে  তাদের ব্যবহার করতাম

মোবাইল ফোনের শক্তি সঞ্চয়ের জন্য লিথিয়াম-আয়ন ব্যাটারী ব্যবহার করে। এই ধরনের ব্যাটারি, লিথিয়াম ধাতু এবং লিথিয়াম আয়নগুলি পৃথক ইলেকট্রোডের মধ্যে সরে যায় এবং তাদের শারীরিকভাবে প্রসারিত করে এবং যুক্ত করে।

দুর্ভাগ্যবশত, এই প্রসেসগুলি পুরোপুরি হওয়ার সময় পায় না এবং ব্যাটারীগুলি তাদের চার্জের ক্ষমতা এবং ভোল্টেজ হারায় যেমন চার্জ সংখ্যা এবং স্রাব চক্র বৃদ্ধি পায়।

চার্জ সঞ্চয় করতে লিথিয়াম-আয়ন ব্যাটারির ক্ষমতা তাদের degradation পরিমাণ নির্ভর করে। এর অর্থ এই যে আমরা আজ আমাদের ডিভাইসগুলি ব্যবহার করি এবং ভবিষ্যতে কিভাবে করব তার উপর নির্ভর করে।

কয়েকটি সহজ ধাপের মাধ্যমে, ব্যবহারকারীরা এই  ব্যাটারির  চার্জ হ্রাস অফ করতে এবং তাদের ডিভাইসের ব্যাটারির চার্জ ধরে রাখার ক্ষমতা প্রসারিত করতে পারে।

How to Charge a Battery ,ব্যাটারি,চার্জ,কিভাবে চার্জ বারাবেন,কিভাবে আপনার ফোন এর ব্যাটারির চার্জ এর স্থায়িত্ব প্রসারিত করবেন

  • ব্যাটারি discharge নিয়ন্ত্রণ300-500 চার্জ / discharge চক্রের পরে মোবাইল ফোনের জন্য সাধারণত লিথিয়াম-আয়ন ব্যাটারির 80% চার্জ ধারণ ক্ষমতা থাকতে থাকে। যাইহোক, ব্যাটারীর চার্জ ২/৩% এ না আসা পর্যন্ত চার্জ এ দিবেন না।

যেহেতু চার্জের একটা লিমিট আছে তাই চার্জ ১০০% হওয়ার সাথে সাথে সকেট থেক  খুলে ফেলবেন।বেশিক্ষণ চার্জ হলে ব্যাটারীর চার্জ ধারণ ক্ষমতা কমে যায়।এমন কি ফোলেও যায়।

  • battery-saving ব্যবহার করুন

স্ক্রীন উজ্জ্বলতা হ্রাস করুন। মোবাইল ব্যবহারের সময় ব্যাটারি চার্জ রক্ষা করার সবচেয়ে সহজ উপায় হল পর্দার উজ্জ্বলতা কমিয়ে রাখা। এতে চার্জ বাঁচবে আবার আপনার চোখেরও ক্ষতি হবে না।

  • ইন্টারনেট কানেকশন অফ করুন

আমরা অনেক সময় দরকার ছাড়া নেট অন করে রাখি।ইন্টারনেট চালু রাখার জন্য আমাদের মোবাইল কে অনেক কাজ করতে হয় যা কিনা মোবাইলের ব্যাটারির উপর চাপ দেয়।অনেকক্ষণ নেট চালু করে রাখলে মোবাইল গরম হয়ে যায় আর ব্যাটারির চার্জ ধারণের স্থায়িত্ব কমে।

  • কথা বলার সময় ইন্টারনেট কানেকশন অফ করুন

আমরা অনেক সময় ইচ্ছা করে বা ভুল করে কথা বলার সময় মোবাইলের নেট চালু রাখি।ফলে নেট এর ডাটা seen and receive করতে অনেক চার্জ খরচ হয় এর সাথে যদি মোবাইলে কথা বলেন তখন সিমের নেটওয়ার্ক আর নেট এর ডাটা seen and receive  এর জন্য মোবাইলে অনেক চাপ পড়ে আর মোবাইলের ব্যাটারির চার্জ শেষ হয়ে যায় অনেক সময় নষ্ট হয়ে যায়।

  • ভিডিও /ছবি কম রাখা

মোবাইলে ভিডিও/ছবি কম রাখবেন কারন আমাদের মোবাইলের প্রসেসর প্রতি সেকেন্ডে মোবাইলে থাকা ফাইল গুলুকে রিড করে।যার কারনে প্রসেসর ব্যাটারির অনেক চার্জ ভক্ষণ করে।

  • ওয়াইফাই ব্যবহার করুন

যদি আপনার বাসায় বা কর্ম ক্ষেত্রে ওয়াইফাই থাকে তাহলে সেটা ব্যবহার করুন।কারণ ওয়াইফাই ব্যবহার করলে মোবাইলের 40% চার্জ সেভ হয় এমনকি সারাদিন নেট ব্যবহার করলেও মোবাইল গরম হয় না।

  • যেখানে সেখানে মোবাইল রাখবেন না

আমরা আমাদের মোবাইলটিকে সেখানে রাখি যেটা মোটেও ভালো কাজ নয়।কোন সময় গরম কিছু উপর রাখবেন না।টিভি,ফ্রিজ,কম্পিউটার এর রাখবেন না।ঘুমানোর সময় বালিশের নিচে রাখবেন না এতে মোবাইল বেশি গরম হয় আর ব্যাটারির কার্যক্ষমতা কমে যায়। খোলা টেবিল এর উপর রাখবেন আর দরকার না হলে কোন ভারি কভার ব্যবহার করবেন না।ভারি কভার মোবাইল থেকে গরম বাতাস বের হতে বাধা দেয়।

এই সহজ কৌশল গ্রহণ করে, ব্যবহারকারীরা ডিভাইসটির ব্যাটারির 40% চার্জ বাড়াতে পারবেন এমন কার্যক্ষমতা নতুনের মত এই থাকবে।

আমাদের পোস্টটি পড়ার জন্য ধন্যবাদ।আশা আমাদের সাথে থাকবেন।আপনার পরামর্শ,অভিযোগ কমেন্ট করে জানাবেন।

আরও পড়ুন

কিভাবে Windows 10 এর অটো আপডেট বন্ধ করবেন?আসুন জেনে নেই

Facebook Comments

1 Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *