জেনে নিন ঘুম নিয়ে কতগুলো মজার তথ্য!

জেনে নিন মানুষের ঘুম নিয়ে কতগুলো মজার তথ্য। একজন মানুষের দৈনিক কতক্ষন ঘুমানো দরকার ?

জেনে নিন অন্যান্য প্রানী আর মানুষে ঘুমের মধ্যে তফাত কি। ঘুম নিয়ে কতগুলো মজার তথ্য জেনে নিন।

প্রত্যেক প্রানীর জন্য ঘুম আবশ্যক।এখনো বিজ্ঞানীরা সঠিক ভাবে জানতে যে ঘুম কিভাবে হয় ? তবুও কিছু ধারনা দিয়েছে।শরীরের ক্লান্তি মেটানোর জন্য প্রতিটি স্তন্যপায়ী,উভচর,জলজ এবং সরিসৃপ প্রানীর ঘুম প্রয়োজন।এতে মগজ ও দেহের কোষ পুনরায় সক্রিয় হয়।মস্তিস্ক থেকে নিরর্গত হয় গুরুত্ব পূর্ণ হরমোন।

বয়সভেদে মানুসের ঘুমানোর সময়সীমা:-

১/  নবজাত শিশুদেও জন্য ১৭ ঘন্টা,
২/ ৫-৮ বছরের শিশুদের জন্য ১৩ ঘন্টা,
৩/ ৯-১২ বছরের বালক-বালিকাদের জন্য ১০ ঘন্টা,
৪/  ১৩-১৬ বছরের কিশোর-কিশোরেিদও ৮ ঘন্টা,
৫/ ১৭ বছরের উর্ধ্বে ৬ ঘন্টা,
ঘুমের নানা রকম বৈকল্য আছে।প্যারাসমিনয়া ঘুমের এমন এক বৈকল্য যার প্রভাবে না ঘুমিয় অস্বাভাবিক কাজ করে। এই অবস্থায় গাড়ি দুর্ঘটনা বেশি হয়।

স্বপ্ন কি ও স্বপ্ন দেখে কেন?

মানুষ স্বপ্ন দেখবে এটা স্বাবাবিক ব্যাপার। মানুষ ঘুমের মধ্যে যা দেখে তাই স্বপ্ন। স্বপ্ন মানুষ কেন দেখে তার ব্যাখ্যা কেউ এখনো সঠিক ভাবে দিতে পারেনি। তবে কারো কারো ধারনা দিনের বেলায় ক’ত কাজ গুলো মানুষ ঘুমে স্বপ্নের মাধ্যমে দেখে।
অন্ধ মানুষও স্বপ্ন দেখো এমনকি যারা জন্ম থেকে অন্ধ তারাও স্বপ্ন দেখে।তারা স্বপ্নে আবেগ,অনুভূতি,স্পর্শ দেখে। স্বপ্ন দেখার দশ মিনিটের মধ্যে মনুস ৯০ ভাগ স্বপ্ন ভুলে যায়।

মানুষের ঘুমানোর ধরন:-

বিভিন্ন মানুষ বিভিন্ন ভাবে ঘুমায়। কেউ ঘুমায় লম্ব হয়ে আবার কেউ কুন্ডুলি পাকিয়ে। একটি গবেষনায় দেখা গেছে কিশোর বয়সে যে ছেলে-মেয়েরা সোজা হয়ে ঘুমায় তাদের তুলনায় যারা কুন্ডুলি পাকিয়ে ঘুমায় তাদের বৃদ্ধি কম হয়।

এর কারন হলো কিশোর বয়স হলো ছেলে-মেয়েদের বৃদ্ধির বয়স।এ্ই সময় ছেলে-মেয়েরা যখন ঘুমায় তখন তাদের শরীর বৃদ্ধি পায়। আর কুজো হয়ে ঘুমালে তা সম্পূর্ণভাবে হয় না।

বেঁচে থাকার জন্য প্রানীর যেমন খদ্য দরকার তেমনি ঘুমও দরকার।মানুষ দশ দিনের বেশি ঘুম ছাড়া বাঁচতে পারে না। যদি এর বেশি সময় মানুষ না ঘমিয়ে থাকার চেষ্টা করে তাহরে সে অতিরিক্ত মানসিক চাপে মারা যাবে।

কষ্ট করে আমাদের লেখাটি পড়ার জন্য ধন্যবাদ।যদি কিছু বলার থাকে বা আপনার লেখা আমাদের সাইটে দিতে চান কমেন্ট করে জানাবেন।

Facebook Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *